1. [email protected] : ইকোনোমিক বিডি প্রতিবেদক : ইকোনোমিক বিডি প্রতিবেদক
  2. [email protected] : ইকোনোমিক বিডি : ইকোনোমিক বিডি
শেষ ঘণ্টায় পাল্টে গেল পুঁজিবাজারে চিত্র
বৃহস্পতিবার, ২৯ জুলাই ২০২১, ০৪:৫৬ পূর্বাহ্ন

শেষ ঘণ্টায় পাল্টে গেল পুঁজিবাজারে চিত্র

  • পোস্ট হয়েছে : বৃহস্পতিবার, ১৭ জুন, ২০২১
  • ৩৮ বার দেখা হয়েছে
DSE-CSE

সূচকের তেজিভাবের মধ্যদিয়ে শুরু হয় সপ্তাহের শেষ কার্যদিবস বৃহস্পতিবার (১৭ জুন) দেশের পুঁজিবাজারে লেনদেন। এদিন ব্যাংক-বিমা এবং বস্ত্র খাতের শেয়ারের দাম বৃদ্ধির প্রবণতায় প্রথম এক ঘণ্টা ৫ মিনিট পর্যন্ত সূচকের এই তেজিভাব অব্যাহত ছিল। এসময় ডিএসইর সূচক আগের দিনের চেয়ে ৪৩ পয়েন্ট বেড়ে ৬ হাজার ৯৪ পয়েন্টে অবস্থান করে।

প্রথম ঘণ্টা লেনদেন শেষে আর্থিক প্রতিষ্ঠান, প্রকৌশল খাতের শেয়ারের পাশাপাশি ব্যাংক শেয়ারের বিক্রি চাপ বাড়তে শুরু করে। আর তাতে সূচকের উঠানামা শুরু হয়। সূচকের এই উঠানামায় লেনদেন হয় দুপুর ১টা পর্যন্ত। এসময়ে সূচক ১৩ পয়েন্ট কমে ৬ হাজার ৮০ পয়েন্টে দাঁড়ায়।

এরপরই পাল্টে যায় পুঁজিবাজারের সপ্তাহের শেষ দিনের চিত্র। ফলে ব্যাংকের শেয়ারের পাশাপাশি বিমা এবং বস্ত্র খাতের শেয়ার বিক্রিরও ধুম পড়ে। তাতে দিনের শেষ এক ঘণ্টায় পুঁজিবাজারে উত্থানের চিত্র পাল্টে গিয়ে দরপতনের রূপ নেয়।

দিন শেষে দেশের প্রধান পুঁজিবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) সূচক ১ পয়েন্ট বাড়ে। অপর পুঁজিবাজার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) সূচক বেড়েছে ৪০ পয়েন্ট। সূচক সামান্য বাড়লেও উভয় কমেছে বেশির ভাগ কোম্পানির শেয়ারের দাম ও লেনদেন।

বিনিয়োগাকরী নোমান উর রশিদ বলেন, সবুজ দিয়ে শুরু হওয়া কোম্পানিগুলোর শেয়ারে লাল বাতিল জ্বলেছে পুঁজিবাজারে লেনদেনে। ফলে ব্রোকার হাউজগুলোতে বিনিয়োগকারীদের মধ্যে অস্বস্তি কাজ করছে। কেনা দামের চেয়ে শেয়ারের দাম একটু বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে বিক্রি করে দিয়েছে। আর বিক্রির চাপ সামলাতে না পেরে পুঁজিবাজারে নেতিবাচক প্রভাব পড়েছে।

ডিএসইর তথ্য মতে, বৃহস্পতিবার (১৭ জুন) ডিএসইতে মোট ৩৭২টি প্রতিষ্ঠানের শেয়ার লেনদেন হয়েছে। এর মধ্যে দাম বেড়েছে ১০৭টির, কমেছে ২৩৭টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ২৮টির। তাতে ডিএসইতে লেনদেন হয়েছে ১ হাজার ৮৪৭ কোটি ১৬ লাখ ৪ হাজার টাকা। এর আগের দিন লেনদেন হয়েছিল ২ হাজার ১০৯ কোটি ৬৮ লাখ ৭২ হাজার টাকা। অর্থাৎ আগের দিনের চেয়ে লেনদেন কমেছে আড়াইশ কোটি টাকার বেশি।

বেশির ভাগ শেয়ারের দাম কমলেও এদিন আগের দিনের চেয়ে ডিএসইর প্রধান সূচক ডিএসইএক্স ১ দশমিক ১৯ পয়েন্ট বেড়ে ছয় হাজার ৫২ পয়েন্টে দাঁড়িয়েছে। প্রধান সূচকের পাশাপাশি ডিএসইর অন্য সূচকগুলোর মধ্যে শরিয়াহ সূচক ২ দশমিক ২৬ পয়েন্ট বেড়ে ১ হাজার ২৯০ পয়েন্টে এবং ডিএসই-৩০ সূচক১৩ দশমিক ৭৯ পয়েন্ট বেড়ে ২ হাজার ১৯৭ পয়েন্টে অবস্থান করছে।

লেনদেনের শীর্ষে ছিল বেক্সিমকো লিমিটেড। এরপর বেশি লেনদেন হয়েছে ন্যাশনাল ফিড মিলস লিমিটেডের শেয়ার। এরপর ক্রমান্বয়ে রয়েছে, পাইওনিয়ার ইনস্যুরেন্স, ওরিয়ন ফার্মা, ন্যাশনাল পলিমার, ফরচুন সুজ, সামিট পাওয়ার, কনফিডেন্স সিমেন্ট, পাওয়ার গ্রিড এবং বিবিএস ক্যাবলস লিমিটেড।

অপরদিকে চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের (সিএসই) সার্বিক সূচক সিএএসপিআই ৪০ পয়েন্ট বেড়ে ১৭ হাজার ৫৭০ পয়েন্টে দাঁড়িয়েছে। সিএসইতে লেনদেন হওয়া ৩০৮টি প্রতিষ্ঠানের মধ্যে বেড়েছে ৮৩টির, কমেছে ১৯১টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ৩৪টির শেয়ারের দাম। এদিন সিএসইতে লেনদেন হয়েছে ১০৪ কোটি ৯৫ লাখ ৯৩ হাজার ৯২৯ টাকা।

শেয়ার দিয়ে সাথেই থাকুন..

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ