1. [email protected] : ইকোনোমিক বিডি প্রতিবেদক : ইকোনোমিক বিডি প্রতিবেদক
  2. [email protected] : ইকোনোমিক বিডি : ইকোনোমিক বিডি
  3. [email protected] : muzahid : muzahid
  4. [email protected] : woishi : woishi
বিক্রয় বৃদ্ধিতে অসামান্য অবদান রাখায় ৩৮১ জনকে পুরস্কৃত করলো ওয়ালটন
শুক্রবার, ২৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ০৮:২৮ পূর্বাহ্ন

বিক্রয় বৃদ্ধিতে অসামান্য অবদান রাখায় ৩৮১ জনকে পুরস্কৃত করলো ওয়ালটন

  • পোস্ট হয়েছে : সোমবার, ৫ ফেব্রুয়ারী, ২০২৪

প্রতিষ্ঠানের বিক্রয় বৃদ্ধি ও প্রবৃদ্ধির ধারাবাহিকতা বজায়ের ক্ষেত্রে বিশেষ অবদান রাখায় ৩৮১ জনকে বিশেষ সম্মাননা ও পুরস্কার দিয়েছে দেশের ইলেকট্রনিক্স জায়ান্ট ওয়ালটন হাই-টেক ইন্ডাস্ট্রিজ পিএলসি।

এদের মধ্যে রয়েছেন ওয়ালটন ডিস্ট্রিবিউটর নেটওয়ার্ক, মার্সেল ডিস্ট্রিবিউটর নেটওয়ার্ক এবং কর্পোরেট সেলস অ্যান্ড ডেভলপমেন্ট নেটওয়ার্কের বিক্রয় প্রতিনিধিসহ বিভিন্ন বিভাগের সদস্যরা।

চলতি বছরের জানুয়ারিতে এবং ২০২৩ সালের ডিসেম্বরে পণ্য বিক্রয় বৃদ্ধিতে তাদের অসামান্য অবদানের স্বীকৃতিস্বরূপ এ পুরস্কার দেওয়া হয়।

রোববার (৪ ফেব্রুয়ারি) বিকেলে রাজধানীতে ওয়ালটন কর্পোরেট অফিসে আয়োজিত বিশেষ সম্মাননা ও পুরস্কার প্রদান অনুষ্ঠানে তাদের পুরস্কৃত করা হয়।

অনুষ্ঠানে পুরস্কারপ্রাপ্তদের হাতে ক্রেস্ট, সম্মাননা ও চেক তুলে দেন ওয়ালটন হাই-টেক ইন্ডাস্ট্রিজ পিএলসি’র ম্যানেজিং ডিরেক্টর (এমডি) এস এম মাহবুবুল আলম এবং ডিরেক্টর নিশাত তাসনিম শুচি।

এ সময় অন্যদের মধ্যে আরও উপস্থিত ছিলেন ওয়ালটন প্লাজার এমডি মোহাম্মদ রায়হান, ওয়ালটনের অ্যাডিশনাল ম্যানেজিং ডিরেক্টর (এএমডি) মেজর জেনারেল (অব.) ইবনে ফজল শায়েখুজ্জামান, নজরুল ইসলাম সরকার ও জিয়াউল আলম এফসিএ, ডেপুটি ম্যানেজিং ডিরেক্টর (ডিএমডি) হুমায়ুন কবীর, সিনিয়র এক্সিকিউটিভ ডিরেক্টর এস এম জাহিদ হাসান, আরিফুল আম্বিয়া, মফিজুর রহমান জাকির, তানভীর রহমান, ফিরোজ আলম, দিদারুল আলম খান (চিফ মার্কেটিং অফিসার) প্রমুখ।

এ ছাড়াও ভার্চুয়াল মাধ্যমে যুক্তরাষ্ট্র থেকে অনুষ্ঠানে ছিলেন ওয়ালটন হাই-টেকের অ্যাডিশনাল ম্যানেজিং ডিরেক্টর ইভা রিজওয়ানা নিলু এবং ওয়ালটন সদরদপ্তর থেকে ডেপুটি ম্যানেজিং ডিরেক্টর ইউসুফ আলী।

অনুষ্ঠানে ওয়ালটন হাই-টেক ইন্ডাস্ট্রিজের চিফ মার্কেটিং অফিসার দিদারুল আলম খান বলেন, দেশের ইলেকট্রনিক্স পণ্যের সিংহভাগ ক্রেতাই ওয়ালটন পণ্যের প্রতি আস্থা রাখছেন। এর অন্যতম প্রধান কারণ ওয়ালটন পণ্যে আইওটি (ইন্টারনেট অব থিংস), ব্যাপক বিদ্যুৎ সাশ্রয়ী ইনভার্টার প্রযুক্তিসহ বিশ্বের সর্বাধুনিক প্রযুক্তি ও ফিচারের ব্যবহার। এ ছাড়াও আইএসও সনদপ্রাপ্ত দেশব্যাপী বিস্তৃত বিশাল বিক্রয়োত্তর সেবা নেটওয়ার্কের মাধ্যমে গ্রাহকদের সেবা প্রদান করা হচ্ছে। এ কাজে প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষভাবে কয়েক সহস্রাধিক সার্ভিস প্রতিনিধি নিয়োজিত রয়েছেন।

উল্লেখ্য, গাজীপুরের চন্দ্রায় ওয়ালটন হাই-টেক ইন্ডাস্ট্রিজের সদর দপ্তরে নিজস্ব ম্যানুফ্যাকচারিং প্ল্যান্টে বিশ্বের সর্বাধুনিক প্রযুক্তির অসংখ্য ধরনের ইলেকট্রিক্যাল, ইলেকট্রনিক্স, হোম ও কিচেন অ্যাপ্লায়েন্সসহ ইন্ডাস্ট্রিয়াল সলিউশনস পণ্য তৈরি করা হচ্ছে। এসব পণ্যের মধ্যে রয়েছে আইওটি বেজড ও ব্যাপক বিদ্যুৎ সাশ্রয়ী ইনভার্টার প্রযুক্তির স্মার্ট ফ্রিজ, এয়ার কন্ডিশনার, কম্প্রেসার, টেলিভিশন, লিফট, ওয়াশিং মেশিন ইত্যাদি।

শেয়ার দিয়ে সাথেই থাকুন..

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ