1. [email protected] : ইকোনোমিক বিডি প্রতিবেদক : ইকোনোমিক বিডি প্রতিবেদক
  2. [email protected] : ইকোনোমিক বিডি : ইকোনোমিক বিডি
  3. [email protected] : muzahid : muzahid
  4. [email protected] : woishi : woishi
২৩ কোম্পানির উপর থেকে তুলে নেওয়া হল ফ্লোরপ্রাইস
শুক্রবার, ২৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১০:৩০ পূর্বাহ্ন

২৩ কোম্পানির উপর থেকে তুলে নেওয়া হল ফ্লোরপ্রাইস

  • পোস্ট হয়েছে : মঙ্গলবার, ২৩ জানুয়ারী, ২০২৪

দেশের শেয়ারবাজারে তালিকাভুক্ত কোম্পানিগুলোর মধ্যে আরও ২৩টির শেয়ারের উপর থেকে ফ্লোরপ্রাইস (শেয়ার মূল্যের নিম্নসীমা) তুলে নেওয়া হয়েছে। আজ মঙ্গলবার (২৩ জানুয়ারি) থেকে আর এসব কোম্পানির শেয়ারে ফ্লোরপ্রাইস থাকবে না।

পুঁজিবাজার নিয়ন্ত্রক সংস্থা বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (বিএসইসি) সোমবার (২২ জানুয়ারি) আলোচিত কোম্পানিগুলোর উপর থেকে ফ্লোরপ্রাইস তুলে নেওয়ার নির্দেশনা জারি করেছে।

এর আগে গত বৃহস্পতিবার (১৮ জানুয়ারি) তালিকাভুক্ত ৩৯২ কোম্পানির মধ্য থেকে ৩৫৭ টির শেয়ারের উপর থেকে ফ্লোরপ্রাইস তুলে নেওয়া হয়। আর বহাল রাখা হয় বাকী ৩৫টির ফ্লোরপ্রাইস।

আজ নতুন করে ২৩ কোম্পানির শেয়ারের উপর থেকে ফ্লোরপ্রাইস তুলে নেওয়ায় এ ব্যবস্থার অধীন রয়েছে আর মাত্র ১২টি কোম্পানি।

সোমবার যেসব কোম্পানির উপর থেকে ফ্লোরপ্রাইস তুলে নেওয়া হয়েছে সেগুলো হচ্ছে-  বারাকা পাওয়ার, বিএসসিসিএল, বিএসআরএম স্টিল, কনফিডেন্স সিমেন্ট, ডিবিএইচ, ডোরিন পাওয়ার, এনভয় টেক্সটাইল, এইচআর টেক্সটাইল, আইডিএলসি, ইনডেক্স অ্যাগ্রো, কেডিএস লিমিটেড,  কট্টালি টেক্সটাইল, মালেক স্পিনিং, ন্যাশনাল হাউজিং ফাইন্যান্স, ন্যাশনাল পলিমার, পদ্মা অয়েল, সায়হাম কটন, শাশা ডেনিমস, সোনালী পেপার, সোনারবাংলা ইন্স্যুরেন্স, শাইনপুকুর সিরামিকস, সামিট পাওয়ার ও ইউনাইটেড পাওয়ার।

বিধি অনুসারে, এসব কোম্পানির শেয়ার লেনদেনের ক্ষেত্রে সার্কিটব্রেকার তথা একদিনে মূল্য পরিবর্তনের সর্বোচ্চ সীমা কার্যকর হবে।

ইউক্রেন-রাশিয়া যুদ্ধ এবং শ্রীলংকার দেউলিয়া ঘোষণাজনিত আতঙ্কের প্রেক্ষিতে দেশের পুঁজিবাজারে বড় দর পতনের আশংকার প্রেক্ষিতে ২০২২ সালের ২৮ জুলাই দ্বিতীয়বারের মতো ফ্লোর প্রাইস আরোপ করে বিএসইসি। তার আগে কোভিড-১৯ এর প্রকোপ শুরু হওয়ার পর একবার ফ্লোরপ্রাইস আরোপ করা হয়েছিল।

ফ্লোরপ্রাইসের কারণে বাজারে শেয়ার কেনাবেচা একেবারে কমে যায়। দীর্ঘদিন ধরে ফ্লোরপ্রাইস বহাল থাকায় বিনিয়োগকারীদের পাশাপাশি ব্রোকারহাউজ, মার্চেন্ট ব্যাংক ও অ্যাসেট ম্যানেজমেন্ট কোম্পানিগুলোও সঙ্কটে পড়ে। এর প্রেক্ষিতে বিএসইসি পর্যায়ক্রমে ফ্লোরপ্রাইস প্রত্যাহার করে নেওয়ার কথা জানায়।

গত বৃহস্পতিবার প্রথম দফায় ৩৫টি ছাড়া বাকী সব কোম্পানির শেয়ারের উপর থেকে ফ্লোরপ্রাইস তুলে নেওয়া হয়। ফ্লোরপ্রাইস তুলে নেওয়ার পর প্রথম কর্মদিবসে (রোববার, ২১ জানুয়ারি) বাজারে বড় দরপতন হলেও দ্বিতীয় দিনে তা সামলে উঠে। সোমবার দেশের দুই স্টক এক্সচেঞ্জেই লেনদেন শেষ হয় সব সূচকের উর্ধমুখী ধারায়। অনেক দিন পর ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে লেনদেনের পরিমাণ ১ হাজার কোটি টাকা ছাড়িয়ে যায়। ফ্লোরপ্রাইস প্রত্যাহারজনিত আতঙ্ক কেটে যাওয়ার আভাস দেখে আজ আরও ২৩ কোম্পানির শেয়ারের উপর থেকে ফ্লোরপ্রাইস প্রত্যাহার করে নেওয়া হয়।

শেয়ার দিয়ে সাথেই থাকুন..

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ